গাছায় এক কবিরাজ ‘ধর্ষক’ গ্রেপ্তার

যোগফল প্রতিবেদক

01 Jun, 2020 06:52pm


গাছায় এক কবিরাজ ‘ধর্ষক’ গ্রেপ্তার
গ্রেপ্তার হওয়া আসামি

গত রোববার [৩১ মে ২০২০] তারিখ গাজীপুর নগরীর গাছা থানাধীন সাইনবোর্ড এলাকায় (ইমনের বাড়ীর ভাড়াটিয়া) এক যুবতীকে (৩০) বিবাদী কবিরাজ মো. শামছুর রহমান (৫৫), পিতা মৃত আব্দুল গণি, গ্রাম চান্দনা রওশন সড়ক, থানা বাসন, জিএমপি গাজীপুর একটি ঘরে আটকিয়ে রেখে মেরে ফেলার হুমকী দিয়ে বাদীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে একাধিকবার ধর্ষণ করে। ধর্ষণের বিষয়টি বাদী তার পিতা মাতাসহ নিকট আত্মীয় স্বজনের কাছে বলতে চাইলে বিবাদী তাকে মারপিট করে এবং ভয়ভীতি দেখানোসহ মেরে ফেলার হুমকি দেয়। দীর্ঘ ১০ বছর যাবত বিবাদীর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে ভিকটিম গত রোববার গাজীপুর র‌্যাব-১ এর কার্যালয়ে এসে বিবাদীর বিরুদ্ধে লিখিত ভাবে অভিযোগ দায়ের করেন। 

বাদীর লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে অত্র র‌্যাব-১, গাজীপুর ক্যাম্পের একটি আভিযানিক দল জিএমপি গাজীপুর বাসন থানাধীন চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় রাত সাড়ে নয়টায় কবিরাজ শামছুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেন। বিবাদী চৌরাস্তা আন্ডার গ্রাউন্ড মার্কেটে গনি মিয়ার কবিরাজ ঘরে বসে বিভিন্ন মহিলাদের তাবিজের তদবির করে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায় যে, বিবাদী কবিরাজ শামছুর রহমান ১০-১১ বছর আগে থেকে ভিকটিমকের সাথে সম্পর্ক হয়। এক পর্যায়ে ভিকটিমকে বিভিন্ন বাসায় আটকিয়ে রেখে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে বিবাদী যৌন ও শারিরীক নির্যাতন করে। বিবাদী একজন কবিরাজ। ধর্ষণের ফলে ভিকটিম ৫-৬ বার অন্তঃসত্তা হলে বিবাদী ভিকটিমকে ভয়ভীতি দেখিয়ে বারবার গর্ভপাত করিয়ে ফেলে। 

ভিকটিম ওই বিষয়ে তার পিতা মাতাকে অবগত করতে চাইলে বিবাদী ভিকটিমকে শারীরিক ভাবে নির্যাতনসহ বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখায়। ঘটনার বিষয়ে বিবাদীকে জিজ্ঞাসা করা হলে কবিরাজ স্বীকার করেন যে, তাদের দুইজনের কোন বিয়ে হয় নাই ও কোন কাবিননামা নাই। 

সে দীর্ঘদিন যাবত ভিকটিমকে ভয় দেখিয়ে তার একটি বাসায় আটক রেখে ধর্ষণ করে আসছে। উক্ত কবিরাজের বিরুদ্ধে ভিকটিম নিজে বাদী হয়ে জিএমপি গাছা থানায় মামলা দায়ের করেন।


বিভাগ : অপরাধ


এই বিভাগের আরও