বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মের জন্য সাংবাদিকতা

যোগফল রিপোর্ট

29 Jun, 2020 02:33am


বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মের জন্য সাংবাদিকতা
ছবি : সংগৃহীত

একইসঙ্গে বেতার, টিভি, অনলাইন ও সামাজিক মাধ্যমের কথা মাথায় রেখে সাংবাদিকতা করতে গেলে, রেডিয়ো বা টিভির জন্য তৈরি একটা স্টোরি কীভাবে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের উপযুক্ত করে লেখা যায় বা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের স্টোরি কীভাবে বেতার সম্প্রচারের উপযুক্ত করা যায়, সেই দক্ষতা অর্জন প্রয়োজন।

বর্তমান মিডিয়ায় অডিয়ো ভিডিয়ো যুক্ত করার সুযোগ হয়েছে অনলাইন ও স্যোসাল মিডিয়ার পেজে প্রচারের জন্য। যোগফল গুরুত্বপূর্ণ সংবাদের ভিডিয়ো ফেসবুক পেজ ও ইউটিউবে আপলোড করে থাকে। যোগফল আধুনিকতার অনুষঙ্গকে আঁকড়ে রাখার চেষ্টা চালায়।

বিবিসি বাংলার সম্পাদক সাবির মুস্তাফা বলছেন একটা রেডিয়ো অনুষ্ঠানকে অনলাইন স্টোরিতে রূপান্তর করতে গেলে ওই রেডিয়ো স্টোরির জন্য পাওয়া তথ্য দিয়েই অনলাইন স্টোরি সাজাতে হয়। কিন্তু প্রয়োজনে অনলাইনের জন্য বাড়তি তথ্যও সংগ্রহ করতে হবে।

রেডিয়ো বা টিভিতে প্রচার হওয়া প্রতিবেদনও অনলাইনে প্রচার করা হয়। ফলে সব মিডিয়ায় প্রচার উপযোগী তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে রাখার চিন্তা আগেই করতে হবে। ছাপা পত্রিকায়ও ছবি ছাড়া সংবাদ চালানো যায়।

রেডিয়ো অনুষ্ঠানের জন্য ছবির প্রয়োজন হয় না, কিন্তু অনলাইন স্টোরির জন্য ছবি অত্যাবশ্যক। তাই রেডিয়ো স্টোরির জন্য তথ্য সংগ্রহের সময় যাদের সাক্ষাৎকার নেওয়া হচ্ছে তাদের এবং আপনার স্টোরির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোর ছবি তুলে রাখা জরুরি।

ছবি ব্যবহারের ক্ষেত্রে ছবির কপিরাইট বা স্বত্বাধিকারের বিষয়টি মাথায় রাখবেন, আপনার কি ছবিটি অনলাইনে প্রকাশের অধিকার আছে?

অনলাইন স্টোরির জন্য ভাল শিরোনাম লেখা একটা বড় চ্যালেঞ্জ। এক্ষেত্রে ভাবতে হবে কোন শিরোনাম পাঠকদের আকৃষ্ট করবে, পাশাপাশি যে শব্দগুলো দিয়ে মানুষ স্টোরিটি খুঁজতে পারে সেই শব্দগুলো শিরোনামে অর্ন্তভূক্ত করাও দরকার।

সামাজিক মাধ্যমে স্টোরিটি সম্পর্কে কীভাবে মানুষকে জানানো যায় সেটাও কীভাবে মাথায় রেখে কাজ করবেন সে বিষয়ে সাবির মুস্তাফার পরামর্শ হল:  

“আপনি যখন একটা অ্যাসাইনমেন্ট পাবেন, একটা জিনিস মাথায় রাখবেন যে আপনাকে সবসময় ছবি তুলতে হবে, প্রয়োজনে তাদের অনুমতি নিয়ে কিছু কথা ভিডিয়ো করতে হবে।”

এসব ছবি আর ভিডিয়ো ব্যবহার করে সামাজিক মাধ্যম যারা ব্যবহার করেন তাদের আপনার স্টোরি সম্পর্কে আকৃষ্ট করা সম্ভব।


বিভাগ : মর্গ