করোনাভাইরাস

করোনাকালে বাংলাদেশে গণমাধ্যম অবস্থা

মীর মারুফ তাসিন

01 Jul, 2020 01:36pm


করোনাকালে বাংলাদেশে গণমাধ্যম অবস্থা
মীর মারুফ তাসিন

বর্তমান বাংলাদেশসহ প্রায় বিশ্বের সব দেশ এখন আতঙ্ক মধ্যে আছে। গত বছর ২০১৯ সালে নভেম্বর মাসে চীনের ‘উহান’ শহর থেকে পুরো বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে। করোনাভাইরাস বা কোভিড ১৯ নামে ভাইরাসটি কারণে পুরো পৃথিবী এখন আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে।

করোনভাইরাস বা কোভিড ১৯ কারণে বিশ্বের সব দেশের গণমাধ্যম কর্মীদের নিরাপত্তা সুরক্ষা, মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ যাবতীয় সকল কিছু ব্যবস্থা করা হয়েছে। কিন্তু আমাদের বাংলাদেশের গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য নেই পর্যাপ্ত সুরক্ষা। এটা খুবই দুঃখজনক। একটি স্বাধীন দেশে গণমাধ্যম কর্মীদের এই বিপদে সময় তারা খুবই কষ্ট করছে। বৃষ্টি, রোদ মধ্যে তারা এই মহামারি সময় কাজ করে যাচ্ছে। তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সরকারের দায়িত্ব। 

এদিকে, বাংলাদেশের গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য প্রণোদনাসহ সকল সুবিধা দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। এই মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বাংলাদেশের গণমাধ্যম কর্মীদের বেতন দিতে পারছে না অনেক টেলিভিশন ও পত্রিকার মালিকরা।

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে জিটিভ, দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশসহ কিছু গণমাধ্যম কর্মীদের তাদের চাকরি থেকে ছাঁটাই করা হয়েছে।

গণমাধ্যম যদি বন্ধ হয় তাহলে সোশ্যাল মিডিয়া জন্য নতুন ঝুঁকি তৈরি করবে এতে সামগ্রিক উন্নয়ন ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বলে আমি মনে করি।

মহামারি করোনাভাইরাস সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে বিশ্বের ২৩ দেশের ৫৫জন গণমাধ্যম কর্মী মারা গেছে। বাংলাদেশের গণমাধ্যম কর্মী হুমায়ুন কবির খোকন এর নাম আছে। দ্যা প্রেস এমব্লেম ক্যাম্পেইন (পিইসি) নামে একটি আন্তজার্তিক সংস্থা থেকে এই তথ্য নেওয়া হয়েছে।

ঢাকাসহ এই পর্যন্ত গণমাধ্যম কর্মী আক্রান্ত হয়েছে ৮৪ জন। মারা গেছে দৈনিক সময়ের আলো নগর সম্পাদক হুমায়ুন কবির খোকন একই পত্রিকায় করোনা উপসর্গ নিয়ে সিনিয়র সহ-সম্পাদক মাহমুদুল হাকিম অপু। জ্বর-শ্বাসকষ্ট নিয়ে মারা গেছে ভোরের কাগজের ক্রাইম রিপোর্টার আসলাম রহমান। মোট সুস্থ হয়েছে ১৩ জন।

সাংবাদিকতা একটি মহান পেশা। এই পেশার কেটা যায় সারা জীবন। নেশার নিয়ে যারা কাজ করেন তারা জীবনে ইচ্ছা করলে অনেক কিছু করতে পারেন। গণমাধ্যম কর্মীরা অনেক কষ্ট করে সংবাদ সংগ্রহ করে। তারপরও তাদের সম্মান করতে পারি না।

তাই শেষে বলতে চাই, করোনাকালে অন্যরা যে প্রণোদনা ও সুযোগ সুবিধা পাইবে গণমাধ্যম কর্মীদের পাওয়ার অধিকার আছে। যদি এটা না করে তাহলে মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হবে বলে আমি মনে করি।

লেখক : শিক্ষার্থী, জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ, মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসির্টি।


বিভাগ : মুক্তমত