সংবিধান সম্পর্কে

পাক প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়ার সঙ্গে আওয়ামী লীগ নেতাদের সমঝোতা

ইয়াহিয়া খা

27 Jan, 2020 12:00pm


পাক প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়ার সঙ্গে আওয়ামী লীগ নেতাদের সমঝোতা

নয়াদিল্লী, ২৪ জানুয়ারি (ইউ এন আই) : পাকিস্তানের নতুন  সংবিধান প্রতিটি অঙ্গ রাজ্যের সংখ্যাধিক্য ভোটে গৃহীত হতে হবে। অন্তত: প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খা এবং আওয়ামী লীগ নেতাদের সাম্প্রতিক বৈঠকে এরকম একটা সমঝোতা হয়েছে। সম্প্রতি লীগ নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করার জন্য পাক প্রেসিডেন্ট ঢাকায় এসেছিলেন।

অঙ্গ রাজ্য হিসাবে না করে সকল সংখ্যাধিক্য ভোটের মাধ্যমেই বোঝাবুঝির ক্ষেত্রে বড় রকমের ও সমঝোতা গড়ে তোলার উপর আওয়ামী লীগ নেতারা গুরুত্ব আরোপ করেছেন। সাপ্তাহিক '‘হলি ডে'’ কাগজে এই খবরটি প্রকাশিত হয়েছে।

সমঝোতার মুল বক্তব্য হলো পররাষ্ট্র, প্রতিরক্ষা এবং কারেন্সিসহ অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে কর বসাবার দায়িত্ব ফেডারেল সরকারের হাতে থাকবে।

বৈদেশিক বাণিজ্য সম্পর্কে যৌথ দায়িত্ব থাকলেও নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা ফেডারেল সরকারের হাতেই থাকবে বলে স্থির হয়েছে।
নতুন সমঝোতায় আর একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হল পূর্ব পাকিস্তান রাইফেলস সম্পর্কে বলা হয়েছে রাইফেল বাহিনী প্রাদেশিক সরকারের হাতেই থাকবে।

সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের স্বার্থ সংরক্ষিত হবে বলে আশা পাকিস্তানের পরিষদের একমাত্র সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি মেজর ত্রিবিদ রায় আশা প্রকাশ করেছেন যে, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ধর্ম ও সংস্কৃতির ন্যায় সংগত স্বার্থ নতুন সংবিধানে সংরক্ষিত করা হবে।
‘পাকিস্তান অবজারভার’ খবরটি দিয়েছে। শ্রী রায় বলেছেন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সদস্যরা যাতে দেশের ব্যাপারে প্রকৃতই অংশগ্রহণ করতে পারে তার জন্য উপরোক্ত সুযোগ করে দিতে হবে।
#
যোগফলের ‘শিকড়’ মেন্যুতে গণমাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের খবর প্রকাশ হচ্ছে। সে সময় হয়তো নানা কারণে দেশ বিদেশের গণমাধ্যমে যেসব খবর প্রচার হয়েছে, তা জানতে পারেনি। এখনও জানার সুযোগ দুর্লভ।

এই মেন্যুর খবরগুলো বানান সংশোধন করে অবিকৃতভাবে প্রকাশ হচ্ছে। এই শিরোনামটি ভারতের দৈনিক কালান্তরে ২৭ জানুয়ারি ১৯৭১ প্রকাশ হয়।


বিভাগ : শিকড়