আটক রেখে ঘুষ নেওয়ার অপরাধে শায়েস্তাগঞ্জের ওসিসহ ৫ জনকে প্রত্যাহার

যোগফল রিপোর্ট

20 Sep, 2020 01:10pm


আটক রেখে ঘুষ নেওয়ার অপরাধে শায়েস্তাগঞ্জের ওসিসহ ৫ জনকে প্রত্যাহার
ছবি : সংগৃহীত

আটক রেখে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হোসেনসহ পাঁচ জনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। রোববার [২০ সেপ্টেম্বর ২০২০] সকালে হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ উল্ল্যা তথ্যর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় শনিবার পাঁচ জনকে শায়েস্তাগঞ্জ থানা থেকে জেলা পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে। তিন সদস্যের একটি দল অভিযোগ তদন্ত করছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে মোহাম্মদ উল্ল্যা বলেন, ‘গত ১৪ সেপ্টেম্বর প্রাণ-আএফএল এর বেস্ট বাই আউটলেটের ব্যবস্থাপক লুৎফুর রহমান পরিচিত এক ব্যক্তির সঙ্গে মোটরসাইকেলে যাচ্ছিলেন। সে সময় রেল ক্রসিং চেক পোস্টে নিয়মিত তল্লাশি চলছিল। মোটরসাইকেলে মালিক লাইসেন্সসহ অন্য কাগজ দেখাতে পারেননি। এরপর তিনি মোটরসাইকেল রেখে কাগজ আনতে যান কিন্তু দীর্ঘ সময় ফিরে আসেননি। এক পর্যায়ে লুৎফুরকে আটক করে পুলিশ। এর চার-পাঁচ ঘণ্টা পরে ঘুষের বিনিময়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।’

ওই ঘটনায় লুৎফুর হবিগঞ্জের পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘মোজাম্মেল হোসেন ছাড়াও এক জন উপপরিদর্শক ও তিন জন কনস্টেবল এই অপরাধে জড়িত ছিলেন। তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন জমা দিলে সিলেট পুলিশের ডিআইজি ও হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার পরের ব্যবস্থা নেবেন।’


বিভাগ : দফতর