বিটিসিএলের সব টেলিফোন নম্বর ১১ ডিজিট হচ্ছে

যোগফল রিপোর্ট

06 Oct, 2020 08:28am


বিটিসিএলের সব টেলিফোন নম্বর ১১ ডিজিট হচ্ছে
ছবি : সংগৃহীত

উন্নত ও আধুনিক সেবা নিশ্চিত করার জন্য বিটিসিএল’র সব গ্রাহকের টেলিফোন নম্বর পর্যায়ক্রমে ১১ ডিজিটে উন্নীত করার কাজ শুরু হয়েছে। ঢাকার গুলশান ও মগবাজার এলাকায় ১১ ডিজিটের নম্বর গ্রাহকদের জানিয়ে দিয়েছে। এ জন্য সারাদেশকে পাঁচটি জোনে ভাগ করেছে বিটিসিএল। পর্যায়ক্রমে সারাদেশেই এ কার্যক্রম চালানো হবে। ল্যান্ডফোনকে জনপ্রিয় করার জন্যই এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

জেনারেল ম্যানেজার (জনসংযোগ ও প্রকাশনা) মীর মোহাম্মদ মোরশেদ জানিয়েছেন, সেন্ট্রাল জোন ২: ঢাকা সিটি ও পাশের সাভার, নারায়ণগঞ্জ শহর, গাজীপুর শহর, টঙ্গী, নরসিংদী, টুঙ্গিপাড়া; দক্ষিণ-পূর্ব জোন ৩: চট্টগ্রাম, চাঁদপুর, ফেনী, কুমিল্লাসহ সন্নিহিত জেলা; দক্ষিণ-পশ্চিম জোন ৪: খুলনা ও বরিশালসহ সন্নিহিত জেলা; উত্তর-পশ্চিম জোন ৫: রাজশাহী ও রংপুরসহ সন্নিহিত জেলা, উত্তর-পূর্ব জোন ৬: সিলেট, ময়মনসিংহ, মানিকগঞ্জ, শেরপুর, জামালপুরসহ সন্নিহিত জেলাসমূহ। 

গ্রাহক একই জোনের ভেতরে যে কোন স্থানে টেলিফোন স্থানান্তর করলে তার টেলিফোন নম্বর অপরিবর্তিত থাকবে। তবে অন্য জোনে স্থানান্তর করলে শুধু প্রথম ডিজিট অর্থাৎ জোন কোডটি পরিবর্তন হবে। বাকি সব ডিজিট একই থাকবে। প্রাথমিকভাবে গুলশান ও মগবাজার এক্সচেঞ্জের আওতাধীন নম্বরসমূহ ১১ ডিজিটে পরিবর্তনের মাধ্যমে একাজ শুরু হচ্ছে। গুলশান টেলিফোন এক্সচেঞ্জের ‘৯৮৪’, ‘৯৮৫’, ‘৯৮৬’, ’৯৮৮’, ‘৯৮৯’ গ্রুপের নম্বরসমূহ ৭ ডিজিটের পরিবর্তে ১১ ডিজিটের নম্বর করা হবে। ‘৯৮৬’, ‘৯৮৮’, ‘৯৮৯’ গ্রুপের নম্বরসমূহের শেষ ৫ ডিজিট অপরিবর্তিত থাকবে। তবে, ‘৯৮৪’, ‘৯৮৫’ গ্রুপের নম্বরসমূহ নতুন নম্বর দ্বারা পরিবর্তিত হবে। ৯৮৪-৯৮ বদলে ০২ ২২২২‘র পর পাঁচটি ডিজিট বর্তমান নম্বরের পুরোটাই অন্য নম্বর দ্বারা পরিবর্তিত হবে।

মীর মোরশেদ বলেন, গুলশান টেলিফোন এক্সচেঞ্জের একটি পুরাতন নম্বর যদি ‘৯৮৮৭৪৮৮’ হয় তা হলে এই নম্বরটি পরিবর্তিত হয়ে ‘০২ ২২২২-৮৭৪৮৮’ হবে। বিটিসিএল থেকে বিটিসিএল কিংবা মোবাইল থেকে বিটিসিএল নম্বরে কল করতে পরিবর্তিত ১১ ডিজিট ডায়াল করতে হবে। উদাহারণ হিসেবে বলা যায়, বাংলাদেশের বাইরে থেকে গুলশানের নম্বরে কল করতে হলে ‘৮৮০ ২ ২২২২-৮৭৪৮৮’ নম্বরে কল করতে হবে। অর্থাৎ বহিঃবাংলাদেশ থেকে কলের ক্ষেত্রে ১৩টি ডিজিট চাপতে হবে। পরিবর্তিত নম্বরসমূহের তালিকা বিটিসিএল ওয়েবসাইট এ পাওয়া যাবে। 

এছাড়া নম্বর পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে গ্রাহককে ফোন কলের মাধ্যমে নতুন নম্বরটি জানিয়ে দেওয়া হবে। গ্রাহককে নম্বর পরিবর্তন বিষয়ে কোন তথ্যের জন্য বিটিসিএল এর কল সেন্টার ‘১৬৪০২’ অথবা কাস্টমার সার্ভিস, গুলশান, কার্যালয়ে ০২-৪১০৮১১৯৯ নম্বরে বা ডিজিএম (সুইচ) গুলশান কার্যালয়ে ০২-৪১০৮০০০০ অথবা ০২-৪১০৮১০৯৮ নম্বরে অফিস সময়ে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা যাচ্ছে। 

এছাড়াও গ্রাহকরা পরিবর্তিত নম্বর বিষয়ে তথ্যের জন্য dgm.swgulshan@btcl.gov.bd অথবা deintgul@gmail.com এই ঠিকানায় ই-মেইল করতে পারবেন। নম্বর পরিবর্তনের কারণে গ্রাহকদের সাময়িক অসুবিধার জন্য বিটিসিএল কর্তৃপক্ষ আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছে।

এদিকে বিটিসিএল পুরোপুরি অটোমেশনের কাজও চলছে। অটোমেশনের কাজ শেষ হলে বিটিসিএল’র সব ধরনের সেবা অনলাইনেই পাওয়া যাবে। অটোমেশনের অংশ হিসেবে নতুন টেলিফোন সংযোগের জন্য অনলাইনে আবেদন করার সুবিধা চালু করা হয়েছে। বিশ্বব্যাপী করোনা সংক্রমণজনিত দুর্যোগ পরিস্থিতিতে গ্রাহকদের জন্য এ সুবিধা তৈরি করেছে বিটিসিএল। এন্ড্রয়েড ফোনে গুগল প্লেলে-স্টোর থেকে টেলিসেবা অ্যাপ ডাউনলোড ও ইন্সটল করে অথবা বিটিসিএল’র ওয়েবসাইট www.btcl.gov.bd মাধ্যমে টেলিফোনের নতুন সংযোগের জন্য আবেদন করা যাবে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে দেশব্যাপী বিনামূল্যে টেলিফোন সংযোগের অফার চলছে। শুধু জামানতের টাকা ব্যাংকের মাধ্যমে পরিশোধ করতে হবে। বিটিসিএলকে গ্রাহকবান্ধব করার উদ্দেশে আরও বেশ কয়েকটি সেবা অনলাইনের মাধ্যমে পাওয়া যাবে। 

সূত্র জানিয়েছে, ল্যান্ডফোনকে প্রতিযোগিতার বাজারে টিকিয়ে রাখতে গ্রাহকদের জন্য নানা সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। ল্যান্ড টু ল্যান্ড ফোন সারাদেশে কথা দিন রাত কথা বললে মাসে মাত্র ১৫০ টাকা বিল নির্ধারণ করা হয়েছে। বিটিসিএল ইন্টারনেট অনেক কম দামে গ্রাহককে দেওয়া হচ্ছে। মুজিববর্ষকে কেন্দ্র করে বিটিসিএল’র আরও অনেকগুলো প্যাকেজ বাস্তবায়ন করা হবে। বর্তমানে ল্যান্ডফোন সংযোগ বাড়ছে। মোবাইলের কারণে ল্যান্ডফোনের গুরুত্ব অনেকাংশে কমে গেছে। অনেকেই এখন বিটিসিএল মুখী হচ্ছেন। আগে যাদের লাইন বন্ধ ছিল বছরের পর বছর, তারাও কানেকশন পুনঃস্থাপন করছেন।