শিমুলতলীতে মোবাইল ফোনে ডেকে এনে শিক্ষার্থীকে গণধর্ষণ, দুইজন গ্রেপ্তার

যোগফল প্রতিবেদক

16 Oct, 2020 06:39pm


শিমুলতলীতে মোবাইল ফোনে ডেকে এনে শিক্ষার্থীকে গণধর্ষণ, দুইজন গ্রেপ্তার
ছবি : সংগৃহীত

গাজীপুর জেলার শিমুলতলীতে মোবাইল ফোনে ডেকে এনে তিন তরুণ মিলে এক কলেজশিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার ঘটনায় দুই তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার রাতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার দুই তরুণ হলেন মাসুদ রানা (২৫) ও মো. আনন্দ (২২)। তারা গাজীপুর সিটির বাসিন্দা।

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই শিক্ষার্থীর মোবাইল ফোনে কল দিয়ে জরুরি কাজের কথা আছে বলে শিমুলতলী বটতলা এলাকায় নিয়ে যান তার বন্ধু মো. নাঈম। সেখান থেকে তিনি ওই শিক্ষার্থীকে একটি অটোরিকশায় করে শিমুলতলী স্কুল গেটসংলগ্ন নির্জন স্থানে নিয়ে যান। পরিস্থিতি দেখে সন্দেহ হলে ওই শিক্ষার্থী পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় মো. নাঈম ও তার দুই সহযোগী আনন্দ ও মাসুদ রানা মিলে পর্যায়ক্রমে তাকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যান। 

পরে ওই শিক্ষার্থীর চিৎকারে আশপাশের মানুষ এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। বর্তমানে তিনি ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। রাতেই ওই শিক্ষার্থী বাদি হয়ে গাজীপুর মেট্রোপলিটনের সদর থানায় তিনজনকে আসামি করে মামলা করেন। মামলার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে আসামি আনন্দ ও মাসুদ রানাকে গ্রেপ্তার করে। ঘটনার পর থেকেই মামলার প্রধান আসামি নাঈম পলাতক আছেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটনের সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর ভূঁইয়া বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িত দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামি নাঈমকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে।


বিভাগ : অপরাধ


এই বিভাগের আরও