একই পরিবারের চারজনকে হত্যা: আদালতে ছোট ভাইয়ের স্বীকারোক্তি

যোগফল রিপোর্ট

22 Oct, 2020 06:54am


একই পরিবারের চারজনকে হত্যা: আদালতে ছোট ভাইয়ের স্বীকারোক্তি
ছবি প্রতীকী

সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়ায় দুই শিশুসহ একই পরিবারের চার জনকে হত্যার ঘটনায় নিহত শাহিনুরের ছোটভাই রায়হানুল আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।

সাতক্ষীরা মুখ্য বিচারিক হাকিম বিলাস মন্ডলের আদালতে বুধবার [২১ অক্টোবর ২০২০] জবানবন্দি দেন বলে জানিয়েছেন পুলিশের আদালত পরিদর্শক অমল রায়।

এদিকে, জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার অভিযোগ স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডি।

বুধবার বিকালে সাতক্ষীরা সিআইডি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে সিআইডি খুলনা বিভাগের দায়িত্বে থাকা উপমহাপরিদর্শক ওমর ফারুক এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে ভাই-ভাবী ও তাদের দুই শিশু সন্তানকে হত্যার অভিযোগ স্বীকার করেছে রায়হানুল। তার তথ্যে বাড়ির পুকুর থেকে হত্যার কাজে ব্যবহার করা চাপাতি ও একটি তোয়ালে উদ্ধার করা হয়েছে।

গত ১৪ অক্টোবর রাতে কলারোয়ার খলসি গ্রামে মাছ ব্যবসায়ী শাহিনুর ইসলাম (৪০), তার স্ত্রী সাবিনা খাতুন (৩৫), ছেলে সিয়াম হোসেন (১০) ও তাসলিমাকে (৮)  গলা কেটে হত্যা করা হয়। রাতেই শাহিনুরের শাশুড়ি ময়না খাতুন বাদি হয়ে কারো নাম উলে­খ না করে কলারোয়া থানায় হত্যা মামলা করেন। 

তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় সিআইডির পুলিশ পরিদর্শক শফিকুল ইসলামকে। পরদিন সকালে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয় নিহতের ছোটভাই রায়হানুলকে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রায়হানুলকে হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

সিআইডি উপমহাপরিদর্শক ওমর ফারুক জানান, কোমল পানীয়ে ঘুমের ঔষধ মিশিয়ে ওই চার জনকে খাওয়ান রায়হানুল। পরে তাদের কুপিয়ে হত্যা করেন বলে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন আসামি।

সাতক্ষীরা সিআইডি বিশেষ পুলিশ সুপার আনিচুর রহমান জানান, রায়হানুলকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালত গত ১৮ অক্টোবর পাঁচ দিনের রিমান্ডে দেন। তার দেওয়া তথ্যে মঙ্গলবার কলারোয়া উপজেলার খলিসা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক, একই গ্রামের আব্দুল মালেক ও ধানঘরা গ্রামের আসাদুল ইসলামকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বুধবার আব্দুল মালেককে সাত দিনের রিমান্ডে চেয়ে আদালতে আবেদন করা হয়।


বিভাগ : আড়চোখ


এই বিভাগের আরও