তিনি শ্রমিকলীগ নেতার স্ত্রী, কনস্টেবলকে মেরে এখন কারাগারে

যোগফল প্রতিবেদক

31 Oct, 2020 08:50pm


তিনি শ্রমিকলীগ নেতার স্ত্রী, কনস্টেবলকে মেরে এখন কারাগারে
ছবি : সংগৃহীত

খুলনায় এক পুলিশ কনস্টেবলকে মারধরের অভিযোগে এক শ্রমিক লীগের নেতার স্ত্রী ফাতেমা আক্তার বিউটিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

শনিবার [৩১ অক্টোবর ২০২০] সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আলিফ রহমানের আদালতে সোপর্দ করার পর বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

রূপসা থানা পুলিশ জানায়, গত শুক্রবার দুপুরে রূপসা উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মফিজুল ইসলামের স্ত্রী ফাতেমা আক্তার বিউটি, তার দুই ভাতিজা আহমদ শেখ ও মোহাম্মদ শেখ এবং মনি গাজী নামে অপর এক যুবক দুইটি মোটরসাইকেলে রূপসা থেকে খুলনার দিকে যাচ্ছিলেন।

তারা খানজাহান আলী সেতুর (রূপসা সেতু) টোল প্লাজায় সিরিয়াল ভঙ্গ করে আগে যাওয়ার চেষ্টা করলে টোল আদায়কারীদের সঙ্গে তাদের বাগবিতণ্ডা হয়। এ সময় পুলিশ কনস্টেবল সাইদুর রহমান এগিয়ে গেলে তারা তার সঙ্গেও বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে।

এক পর্যায়ে পুলিশ কনস্টেবল সাইদুর রহমানকে মারধর করেন ফাতেমা আক্তার বিউটিসহ ওই চারজন। তখন টোলপ্লাজায় দায়িত্বরত অন্য পুলিশ সদস্যরা এগিয়ে গিয়ে ফাতেমাকে আটক করে। এ সময় অন্যরা পালিয়ে যায়।

টোল প্লাজার পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ এসআই জাকির বলেন, টোলপ্লাজায় তিন পুলিশ সদস্য দায়িত্বরত ছিলেন। গাড়িবহর নিয়ে সিরিয়াল ভঙ্গ করে যাওয়ার জন্য সিকিউরিটি গার্ডদের সঙ্গে এক নারীর বাগবিতণ্ডা হচ্ছে দেখে পুলিশ এগিয়ে যায়। এ সময় বিউটি পুলিশ কনস্টেবল সাইদুর রহমানকে আঘাত করেন। এতে তার পোশাকের বোতাম ছিঁড়ে যায়।

রূপসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা জাকির হোসেন বলেন, সরকারি কাজে বাধাদান, ভয় দেখানো ও হুমকি দেওয়া এবং পুলিশ সদস্যকে মারপিটের অভিযোগে গত শুক্রবার রাতে ফাতেমা আক্তার বিউটিসহ চারজনের নাম উল্লেখসহ অচেনা আরও ৩-৪ জনের নামে পুলিশের নায়েক রাজিব হোসেন এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী মো. মশিউর রহমান রূপসা থানায় পৃথক মামলা দায়ের করেছেন। পলাতক অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


বিভাগ : হ-য-ব-র-ল