বিদেশি তেল কোম্পানিগুলোকে জাতীয়করণের দাবি জোরদার হচ্ছে

আসাদুল্লাহ বাদল

02 Feb, 2020 03:32am


বিদেশি তেল কোম্পানিগুলোকে জাতীয়করণের দাবি জোরদার হচ্ছে

নয়াদিল্লী, ১ ফেব্রুয়ারি (আই পি এ) : পাকিস্তানে তেলের ঘাটতি হওয়ার দরুণ বিদেশি তেল কোম্পানিগুলোকে জাতীয়করণ করার দাবি ক্রমশই জোরদার হয়ে উঠছে।

পাকিস্তানের বিভিন্ন মহল মনে করছে শেখ মুজিবর রহমানের নেতৃত্বে নতুন সরকার গঠিত হলে বিদেশি তেল কোম্পানি বামসেল ক্যালটেক্স ও এসোর কার্যকলাপ খর্ব করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে।

এই মর্মে জল্পনা কল্পনা চলছে যে বিদেশি কোম্পানির লাইসেন্স বাতিল করে তা করাচীর ব্যবসায়ী গোষ্ঠীর হাতে অর্পণ করা হবে।
প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য যে, শেখ মুজিবর ও ভুট্টো নির্বাচনকালে বিদেশি ও পাকিস্তানের একচেটিয়া পঁজিবাদীদের কার্যকলাপ খর্ব করার প্রতিশ্রুতি দেন।
সরকার ইতিমধ্যেই পশ্চিম পাকিস্তানে কোরোসিনের কালোবাজার বন্ধ করার জন্য কয়েকটি ব্যবস্থা নিয়েছে। কিন্তু সেগুলো কার্যত ব্যর্থ হয়েছে।

রাওয়ালপিন্ডিতে এক টিন কেরোসিন ২৭ টাকায় ও এক বোতল এক টাকায় কালোবাজারে বিক্রি হচ্ছে।
পাকিস্তান সরকার সম্প্রতি বার্মা অয়েলে ৫১ শতাংশ পাকিস্তানের শেয়ার ক্রয়ের যে উদ্যোগ নিয়েছে, সে সম্পর্কে উপরোক্ত বিদেশি কোম্পানিগুলো বিচলিত বোধ করছে বলে জানা গেছে। তবে বিদেশি কোম্পানিগুলোকে তেল বিলি বন্টনের অবাধ সুযোগ দেওয়ায় তেলে প্রচণ্ড ঘাটতি দেখা দিয়েছে এবং সেই সুযোগ কালোবাজারীও চালু হয়েছে।

নোট : যোগফলের ‘শিকড়’ মেন্যুতে গণমাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের খবর প্রকাশ হচ্ছে। সে সময় হয়তো নানা কারণে দেশ বিদেশের গণমাধ্যমে যেসব খবর প্রচার হয়েছে, তা জানতে পারেনি। এখনও জানার সুযোগ দুর্লভ।

এই মেন্যুর খবরগুলো প্রমিত বানানে অবিকৃতভাবে প্রকাশ হচ্ছে। এই শিরোনামটি ভারতের দৈনিক কালান্তরে ০২ ফেব্রæয়ারি ১৯৭১ প্রকাশ হয়।


বিভাগ : শিকড়