পিরুজালীতে বড় ভাইকে কুপিয়ে ‘নির্বিকার ঘুরে বেড়াচ্ছে’ ছোট ভাই

যোগফল প্রতিবেদক

04 Feb, 2021 01:44pm


পিরুজালীতে বড় ভাইকে কুপিয়ে ‘নির্বিকার ঘুরে বেড়াচ্ছে’ ছোট ভাই
ছবি : সংগৃহীত

গাজীপুরে সদর উপজেলার পিরুজালীতে জমি ও পারিবারিক শত্রুতার বিরোধকে কেন্দ্র করে বড় ভাইকে কুপিয়ে জখম করেছে ছোট ভাই ও তার অনুগতরা। গুরুতর আহত বেলায়েতকে আশংকাজনক অবস্থায় গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহামেদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা করা হয়। গত ২৭ জানুয়ারি রাত সাড়ে আটটার দিকে পিরুজালী আলিমপাড়া পাগলা মার্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত বেলায়েত হোসেন (৫৫) সদর উপজেলার পিরুজালী আলীমপাড়া গ্রামের আ. হামিদের বড় সন্তান। অভিযুক্ত ছোট ভাই মাসুম হোসেন (৩৫), তার সহযোগী একই গ্রামের মূত আকুল ইসলামের সন্তান মাজহারুল ইসলামসহ আর ২-৩ জন।

এ ঘটনায় বেলায়েত হোসেন কিছুটা সুস্থ হয়ে গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর থানায় একটি এজাহার দাখিল করেন।

ভুক্তভোগী বেলায়েত হোসেন জানান, তিনি একজন গরু ব্যবসায়ী। গত ২৭ জানুয়ারি রাতে গরুর ব্যবসা বাবদ ২ লাখ ৪৫ হাজার টাকা নিয়ে, পিরুজালী পাগলা বাজারে তৈজদ্দিনের চায়ের দোকানে চা খেয়ে বাড়িতে ফিরছিলেন। হঠাৎ মাসুম, মাজহারুলসহ ২-৩ জন পথ আগলে ধরে অতর্কিত হামলা করে। এক পর্যায়ে ছোট ভাই মাসুমের হাতে থাকা ধারালো চাপাতি দিয়ে বড় ভাই বেলায়েতের মাথায় একাধিক বার কুপিয়ে জখম করে। এতে তিনি মাটিতে পড়ে যায়। তার মাথায় কয়েকটি সেলাই দেওয়া রয়েছে।

তখন বাঁচার জন্য ডাক-চিৎকার শুরু করলে আশেপাশের আত্মীয়-স্বজন এগিয়ে আসতে থাকে। তখন মাজহারুল লুঙ্গির কোচে থাকা ২ লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে বেলায়েতের স্ত্রী রুমী আক্তার জানান, ‘আমার স্বামীকে হত্যার উদ্দেশ্যে মাথায় একাধিক বার কুপিয়েছে মাসুম। এ ঘটনায় জয়দেবপুর থানায় অভিযোগ করলেও এখন পর্যন্ত কোনো আসামিকে গ্রেপ্তার করেনি পুলিশ। উল্টা আমাদের মীমাংসার জন্য নানা মহল থেকে বিভিন্নভাবে চাপ দেওয়া হচ্ছে। আমি ঘটনার বিচার চাই।’

ঘটনাস্থলের আশে পাশের বাড়িতে [নাম প্রকাশ করতে অনীহা] জিজ্ঞাসা করলে, সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তারা খুব খারাপ প্রকৃতির। তাদের বিরুদ্ধে কথা বলার কেউ নেই। এলাকায় এ ধরনের ঘটনা আগেও কয়েকবার ঘটেছে। কোন ঘটনার তদন্ত বা বিচার হয়নি। এলাকার কিছু প্রভাবশালী নেতা আছে, তারা বাদিকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে মীমাংসা করে ফেলে।

এ ঘটনায়ও অভিযোগ করা হলেও এখন পর্যন্ত কোনো আসামিকে পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি। আমরা দোষীদের শাস্তি দাবি জানাচ্ছি, যাতে এলাকায় এ ধরনের ঘটনা পুনরায় আবার না ঘটে।

জয়দেব থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মামুন আল রশিদ জানান, অভিযোগ পেয়েছি, ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীসহ একাধিক এলাকাবাসীর বক্তব্য যোগফল মর্গে রাখা আছে।



এই বিভাগের আরও