টঙ্গীতে স্কুল শিক্ষার্থী হত্যা মামলার আসামি স্বীকারোক্তি দিয়েছে

যোগফল প্রতিবেদক

12 Apr, 2021 07:11pm


টঙ্গীতে স্কুল শিক্ষার্থী হত্যা মামলার আসামি স্বীকারোক্তি দিয়েছে
ছবি : সংগৃহীত

টঙ্গীতে অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ইসমাইল সরকারকে (১৪) অপহরণ ও ৫  লাখ মুক্তিপণের দাবি করা টাকা না পেয়ে হত্যা করে তুরাগ নদে লাশ ফেলে দেওয়া হত্যা মামলার আসামি আতাউল হোসেনকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে টঙ্গী পশ্চিম থানার পুলিশ। সে গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা থানার রামনগর গ্রামের মৃত ইমাম হোসেনের সন্তান। 

পুলিশ জানান, গত ১৯ মার্চ সন্ধ্যায় টঙ্গী তুরাগ নদে ভাসমান অবস্থায় অচেনা একটি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এই ঘটনায় টঙ্গী পশ্চিম থানায় একটি হত্যা মামলা হয়। অচেনা ব্যক্তির পরিচয় জানতে গাজীপুর মেট্রোপলিটনসহ আশপাশের জেলাগুলোতে সামাজিক মাধ্যমে ও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলোতে জনসমাগমের স্থানে নিহতের ছবি প্রিন্ট করে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। 

এ ঘটনায় ডিএমপির তুরাগ থানায়ও একটা নিখোঁজ জিডি হয়। এরই সূত্র ধরে টঙ্গী পশ্চিম থানার ইয়াসিন আরাফাতসহ একটি টিম নিহতের অস্থায়ী ঠিকানা কামারপাড়ায় উপস্থিত হয়ে নিহতের পিতা মাতাকে ছবি, জামা কাপড় দেখালে তারা নিহত ব্যক্তিকে শনাক্ত করে। 

নিহত ব্যক্তি সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ থানার ধানঘরা গ্রামের নূর নবী সরকারের সন্তান। সে ঢাকা কামারপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলো।

এ বিষয়ে টঙ্গী পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শাহ আলম জানান, আসামি আতাউল নিহত ব্যক্তির পিতার কাছে মুক্তিপণ হিসেবে ৫ লাখ টাকা দাবি করেছিল। দাবি করা টাকা না পেয়ে ইসমাইল হোসেনকে খুন করে। আতাউল ঘটনার সাথে জড়িত বলে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।


বিভাগ : অপরাধ


এই বিভাগের আরও