‘বাঘেরবাজার’ সাত দিনের মধ্যে দোকান পাট সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ

যোগফল প্রতিবেদক

14 Apr, 2021 08:49pm


‘বাঘেরবাজার’ সাত দিনের মধ্যে দোকান পাট সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ
ছবি : সংগৃহীত

গাজীপুর সদর উপজেলার বাঘেরবাজার এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক ও সড়কের উভয় পাশের ফুটপাত ও সড়ক-সংলগ্ন সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের জমিতে গড়ে উঠেছে কয়েক হাজার ভাসমান দোকান ও অবৈধ স্থাপনা। এসব দোকান আর স্থাপনার কারণে যানবাহন চলাচল ব্যাহত হয়। ফলে যানজট তৈরি হয়। এতে দুর্ভোগের শিকার হয় পথচারী ও যাত্রীরা। তাই এসব দোকানপাট উচ্ছেদ অভিযানে নেমেছেন সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় বুধবার (১৪ এপ্রিল ২০২১) দুপুরে মহাসড়কের পাশে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের জায়গায় যেসব অবৈধ স্থাপনা আছে। সেগুলো নিজে নিজে সরিয়ে নেওয়ার জন্য মাইকিং করে সাত দিনের সময় দেওয়া হচ্ছে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তা ফজলে রাব্বী জানান, মহাসড়কে যানজট ও শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করার জন্য সাত দিনের সময় দেওয়া হয়েছে। সাত দিনের মধ্যে সরিয়ে না নিলে, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অচিরেই বাঘের বাজার একটি ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ কাজ শুরু হবে বলেও জানান।

এ বাজারে আগে ইজারা দেওয়া হলেও হাইকোর্টের নির্দেশে এখন ইজারা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তারপরেও এই বাজারে অবৈধভাবে মহাসড়কের পাশে দোকানপাট বসিয়ে নেওয়া হচ্ছে চাঁদা।

কয়েকজন ব্যবসায়ী বলেন, বাঘেরবাজার বাসস্ট্যান্ড এলাকার এসব দোকান থেকে প্রতিদিন ৫০ থেকে ২০০ টাকা হারে চাঁদা আদায় করা হচ্ছে। 

এ ব্যাপারে একাধিক গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর বাজার ইজারা সংক্রান্ত বিষয়ে প্রশাসনে তৎপরতা দেখা গেছে।

এ ব্যাপারে গাজীপুর সদর উপজেলার নির্বাহি কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল জাকী জানান, এটা সড়ক ও জনপদের জায়গা, তাই আমরা তাদের অবহিত করেছি যে ৩১ মার্চ আমাদের ইজারা শেষ হয়ে গেছে। এবং এ বাজারটি বিলুপ্ত হয়ে গেছে। এখানে আর কোন সরকারি ইজারা হবে না। তাই সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, তারা তাদের জায়গা বুঝে নেওয়ার জন্য। 

পরে তারা আমাকে জানিয়েছেন, সাত দিনের সময় দিয়ে মাইকিং করাসহ একটি গণ বিজ্ঞপ্তি নোটিশ টানিয়ে দেওয়া হয়েছে। যদি সাত দিনের মধ্যে কেউ সরিয়ে না নেয়, তা হলে ম্যাজিস্ট্রেট ও স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


বিভাগ : দফতর