ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এমপি বাদি হয়ে হেফাজত নেতাদের নামে মামলা করেছেন

যোগফল প্রতিবেদক

02 May, 2021 07:18am


ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এমপি বাদি হয়ে হেফাজত নেতাদের নামে মামলা করেছেন
ছবি : সংগৃহীত

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সহিংসতার ঘটনায় হেফাজতে ইসলামের জেলা শাখার সভাপতি মাওলানা সাজিদুর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মোবারক উল্লাহসহ ১৪ জনের নাম উল্লেখ করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। 

মামলায় অচেনা ১৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে। শনিবার [১ মে ২০২১] সন্ধ্যায় সদর আসনের সংসদ সদস্য উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী বাদি হয়ে মামলাটি করেন। এমপির পক্ষে তার আইনজীবী ও শহর আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল জব্বার মামুন সদর মডেল থানায় মামলার আবেদন জমা দেন।

মামলায় জেলা হেফাজতের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ছাড়াও মাওলানা আশরাফুল হোসেন তপু, বোরহান উদ্দিন কাসেমী, মাওলানা আলী আজম, মাওলানা এরশাদ উল্লাহ, মাওলানা জুনায়েদ কাসেমী, মাওলানা নোমান আল হাবিব, মমিনুল হাসান তাজ, সুলেমান মোল্লা, মাওলানা এনামুল হক, মাওলানা আব্দুল হাকিম, মাওলানা মনজুরুল হক ও খালেদ মোশাররফকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে আগমনকে কেন্দ্র করে গত ২৬ মার্চ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নারকীয় তাণ্ডব চালান হেফাজতে ইসলামের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার নেতাকর্মীরা। তারা তাণ্ডব চালিয়ে বৈধ সরকারকে উৎখাত করার ষড়যন্ত্র ও পরিকল্পনা করেন।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, হেফাজতে ইসলামের জেলা শাখার সভাপতি মাওলানা সাজিদুর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মোবারক উল্লাহসহ অন্য আসামিদের নির্দেশে বিভিন্ন ফেসবুক পেজ, আইডি ও নিউজ পোর্টালে সাইবার সন্ত্রাস সংগঠিত করে রাষ্ট্রদ্রোহিতামূলক, বিদ্বেষ ও ঘৃণামূলক স্ট্যাটাস প্রদান করে জনসাধারণের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি করা হয়।

এর মাধ্যমে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির ব্যাপক অবনতি ঘটে। মামলার আবেদনের সত্যতা নিশ্চিত করে সদর থানা ওসি জানিয়েছেন ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষে অনুমতি সাপেক্ষে পরের পদক্ষেপ নেওয়া হবে।



এই বিভাগের আরও