‘রাবির বিদায়ী উপাচার্য অবৈধ ও বিধি-বহির্ভূতভাবে জনবল নিয়োগ দিয়েছেন’

যোগফল প্রতিবেদক

07 May, 2021 07:41am


‘রাবির বিদায়ী উপাচার্য অবৈধ ও বিধি-বহির্ভূতভাবে জনবল নিয়োগ দিয়েছেন’
ছবি : সংগৃহীত

সরকারের নির্দেশ উপেক্ষা করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বিদায়ী উপাচার্য ডক্টর এম আব্দুস সোবহান বিভিন্ন পদে অবৈধ ও বিধি-বহির্ভূতভাবে জনবল নিয়োগ দিয়েছেন বলে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এই নিয়োগের বৈধতা পাওয়ার সুযোগ নেই উল্লেখ করে বিষয়টি তদন্ত করতে একটি কমিটি গঠনের কথাও জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার [৬ মে ২০২১] শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপসচিব শামিমা বেগমের সই করা এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়। তদন্ত কমিটিকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, রাবি উপাচার্য প্রফেসর আব্দুস সোবহানের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের বিষয়ে এর আগেই বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন তদন্ত করেছে। তদন্তে উপাচার্যের বিরুদ্ধে নিয়োগ কার্যক্রম নিয়ে আনা অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণ হওয়ায় গত বছরের ১০ ডিসেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রশাসনিক কারণে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরনের নিয়োগ কার্যক্রম পরের নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত রাখার জন্য উপাচার্যকে অনুরোধ করে।

তবে বৃহস্পতিবার উপাচার্যের শেষ কর্মদিবসে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ উপেক্ষা করে উপাচার্য বিভিন্ন পদে অবৈধ ও বিধি-বহির্ভূতভাবে জনবল নিয়োগ দিয়েছেন বলে মন্ত্রণালয় জানতে পেরেছে। যার পরিপ্রেক্ষিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে, যা অনভিপ্রেত।

এছাড়া বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিদায়ী উপাচার্যের নিয়োগ করা জনবলের বৈধতা পাওয়ার সুযোগ নেই বলে এ সংক্রান্ত বিষয় তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য চার সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিতে আছেন, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন সদস্য প্রফেসর ডক্টর মুহাম্মদ আলমগীর ও প্রফেসর ডক্টর মো. আবু তাহের, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের যুগ্মসচিব ডক্টর মো. জাকির হোসেন আখন্দ এবং মোহাম্মদ জামিনুর রহমান, পরিচালক (পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়), ইউজিসি।



এই বিভাগের আরও