তাজুলের আত্মত্যাগ বৃথা যাবার নয়

যোগফল প্রতিবেদক

01 Mar, 2020 02:48pm


তাজুলের আত্মত্যাগ বৃথা যাবার নয়

স্বৈরাচারবিরোধী গণআন্দোলনে শহিদ কমরেড তাজুল ইসলামের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনকালে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, তাজুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ ডিগ্রী নিয়েও ব্যক্তিগত আরাম-আয়েশ পরিত্যাগ করে এদেশের শ্রমজীবী মানুষের মুক্তির জন্য নিজেকে নিবেদিত রেখেছিলেন। 

বদলি শ্রমিকের কাজ নিয়ে আদমজী পাটকলে শ্রমিকদের সংগঠিত করেছিলেন। এরশাদ স্বৈরাচারের গুণ্ডারা তাঁকে নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করেছে। তাজুল নিজের মতাদর্শগত চেতনায় এবং পার্টির নির্দেশে স্বৈরাচারবিরোধী হরতাল সফল করতে গিয়ে জীবন দিয়েছিলেন। তাঁর মৃত্যু এক মহান মৃত্যু। কিন্তু তাঁর জীবন সংগ্রাম আরও মহান।

৩৬তম শহিদ তাজুল দিবসে রোববার (১ মার্চ ২০২০) মুক্তিভবনের সামনে নির্মিত অস্থায়ী শহিদ বেদিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদেনের পর অনুষ্ঠিত সংক্ষিপ্ত সমাবেশে কমরেড সেলিম এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন শ্রমিকনেতা সাদেকুর রহমান শামীম।

রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন মনজুরুল আহসান খান, খালেকুজ্জামান, মোহাম্মদ শাহ আলম, অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার, শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, মানস নন্দী, আনিসুর রহমান মল্লিক, শ্রমিকনেতা ডাক্তার ওয়াজেদুল ইসলাম খান, ফজলুল হক মন্টু, আবুল কালাম আজাদ এবং ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেল।

সেলিম আরও বলেন, শহীদ তাজুলের আত্মদান আজও প্রাসঙ্গিক। তাজুলের মত এক ঝাঁক শিক্ষিত তরুণ নিজের ব্যক্তিগত জীবন তুচ্ছ জ্ঞান করে সমষ্টির মুক্তির জন্যে ঝাঁপিয়ে পরবে এটাই যুগের দাবি। একটা শোষণমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার লড়াইকে এগিয়ে নিতে তিনি তরুণ সমাজের প্রতি আহ্বান জানান।


বিভাগ : উপজীব্য


এই বিভাগের আরও